টোকিও অলিম্পিকে অ্যাথলেটরা যাতে যৌ”নমি’লন করতে না পারে, সেজন্য তাদেরকে সিঙ্গেল খাট দেওয়া হয়েছিল। করো’না সং’ক্র’মণের কারণে এই সিদ্ধান্ত। আয়োজকদের দাবি ছিল, একজনের বেশি মানুষ এই খাটে উঠলে তা ভেঙে পড়েবে। কিন্তু বাস্তবতা ভিন্ন। কথিত ‘অ্যা’ন্টি সে”ক্স বিছা’না’ যে কতটা শক্ত তা প্রমাণ করলেন ইস’রায়ে’লের প্রতিযোগীরা!

অলিম্পিকের শুরু থেকেই এই খাট ভাঙার চেষ্টা করেছিলেন অনেকে। সোশ্যাল সাইটে একটা ভিডিও ভাইরাল হয়েছিল। তাতে দেখা যায়, একজন প্রতিযোগী সেই ‘অ্যান্টি সে”ক্স বিছা’না’য় উঠে লা’ফাচ্ছেন। কিন্তু সেটি ভাঙেনি। এরপর আসরে নামলেন ইস’রায়ে’লের প্রতিযো’গীরা। তারা সেই খাট ভে’ঙেই ছে’ড়েছেন! তবে এক-দুজন নয়; খাট ভাঙতে একসঙ্গে লা’ফাতে হয়েছে ৯ জনকে।

ইস’রায়ে’লি অ্যাথ’লেটদের প্রকাশিত এই ভিডিওতে দেখা যায়, একজন একজন করে ৯ প্রতিযোগী সেই ‘অ্যা’ন্টি সে”ক্স বি’ছানা’য় উঠে লাফাচ্ছেন! এক সময় ভে’ঙে যায় খাট। তবে এজন্য ৯জনকে একসঙ্গে সেই খাটে উঠে লাফাতে হয়েছে। এই কাণ্ডটা মজা করে করলেও জাপানের লোকজন ভালো চোখে দেখেননি। অনেকের বক্তব্য, ‘অন্যের জিনিস এভাবে নষ্ট করার অর্থ কী?’