অলিম্পিকে সোনার পদক জেতা কার না স্বপ্ন থাকে! প্রত্যেক খেলোয়াড়রাই চান অলিম্পিকে সোনার মেডেল জিতে ঘরে ফেরার। তবে অলিম্পিকের সোনার পদকে কত সোনা থাকে কারোর আন্দাজ আছে!!

অনেকেরই জানা নেই এই সোনার পদকে সোনা থাকে মাত্র ১.৩৪ শতাংশ। ৫৫৬ গ্রাম ওজনের পদকে সোনা থাকে মাত্র ছয় গ্রাম। বাকি পুরোটাই রুপো দিয়ে গড়া। রুপোর পদক হয় ৫৫০ গ্রাম। তাতে পুরোটাই থাকে এই রুপালি ধাতু।

ব্রোঞ্জের পদকের ওজন হয় ৪৫০ গ্রাম। তাতে ৯৫ শতাংশ ব্রোঞ্জ থাকলেও বাকি ৫ শতাংশ জিংক থাকে।অতএব বোঝা গেল বাস্তবে যেটা সোনার মেডেল বলে পরিচিত, সেটা কিন্তু গোটাটা সোনা নয়।

যেদিন থেকে সোনার দাম ধীরে ধীরে ঊর্ধ্বমুখী হয়েছে সেদিন থেকেই সোনার মান (gold quantity) রিও অলিম্পিকে (Rio Olympic) ক্রমাগত কমেছে। এক গবেষণায় দেখা গেছে যদি ৫০০ গ্রাম ওজনের

একটি গোল্ড মেডেল (gold medal) পুরোপুরি ২৪ ক্যারেট সোনা দিয়ে বানাতে হয় তাহলে প্রতিটি ইন্টারন্যাশনাল অলিম্পিক (International Olympic) এর জন্য কমিটির খরচ ‘হতো ২২ হাজার ডলার।

ভারতীয় মূল্যে যা ১৫ লাখ টাকা। শুধু গোল্ড মেডেল বানাতে অলিম্পিক কমিটিকে প্রায় ৫০ মিলিয়ন ডলার খরচ করতে ‘হতো। যা ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ৩৪০ কোটি টাকার সমান।

তবে ইদানিং এত কম সোনা থাকলেও প্রথম’দিকে কিন্তু এমনটা ছিল না। ১৯১২ সালের সুইডেন অলিম্পিকে শেষবার সম্পূর্ণ সোনার মেডেল দেয়া হয়েছিল প্রথম স্থান অধিকারীকে।

২০১৬ সালে রিও অলিম্পিকে গোল্ড মেডেল এর আর্থিক মূল্য কত তা মেইনস্ট্রিম সংবাদসংস্থা কেবিল নিউজ নেটওয়ার্কের (CNN) দেওয়া হিসাব অনুযায়ী, ৫৮৭ ডলার, অর্থাৎ যা ভারতীয় মুদ্রায় মাত্র ৪০ হাজার টাকার সমান। এর মধ্যে রয়েছে ৪৯৪ গ্রাম রুপো এবং ৬ গ্রাম সোনা।