অ’স্ট্রিয়া প্রবাসী আলোচিত সেফুদার সঙ্গে সদ্য আওয়ামী লীগের মহিলাবি’ষয়ক উপ-কমিটির সদস্য পদ থেকে অব্যা’হতি পাওয়া হেলেনা জাহাঙ্গীরের লেনদেন ছিল বলে জানিয়েছে র‌্যাব’। শুক্রবার (৩০ জুলাই) ‘বিকেলে রাজধানীর কুর্মিটোলায় র‍্যাব’ সদরদফতরে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে র‍্যাব’ের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, সম্প্রতি আওয়ামী লীগের মহিলাবি’ষয়ক উপ-কমিটির সদস্য পদ থেকে অব্যা’হতি পাওয়া হেলেনা জাহাঙ্গীর অ’স্ট্রিয়া প্রবাসী আলোচিত সেফুদার নাতি হিসেবে সম্বোধন করতেন। সেফুদার সঙ্গে তার নিয়মিত যোগাযোগ ছিল এবং তার সঙ্গে লেনদেনও ছিল হেলেনা জাহাঙ্গীরের। সেফুদা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অ’শ্লী’ল ও কুরুচিপূর্ণ বক্তব্যের মাধ্যমে দেশবাসীর নজর কাড়তে চে’ষ্টা করেন। তার সঙ্গে গ্রে’ফতারকৃতের নিয়মিত যোগাযোগ ও লেনদেন রয়েছে বলে জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে সে।

কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, সম্মানিত ব্যক্তির সঙ্গে ছবি তুলে ভাইরাল করে অ’সৎ উদ্দেশ্য হাসিল করার চে’ষ্টা করেছেন হেলেনা জাহাঙ্গীর। তিনি নিজে একটি সং’ঘব’দ্ধ চক্র তৈরি করেছেন। ফেসবুক এসে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ব্যবহার করে সম্মানিত ব্যক্তিদের হেয় প্রতিপন্ন করেন।

তিনি আরও বলেন, বিভিন্ন দেশি-বিদেশি সংস্থা ও ব্যক্তিবর্গ থেকে জয়যাত্রা ফাউন্ডেশনের নামে অর্থ সংগ্রহ করতেন। যা মান’বিক সহায়তায় ব্যবহারের চেয়ে গ্রে’ফতারকৃতের খেতাব প্রচার-প্রচারণায় বেশি ব্যবহার করা ‘হতো। হেলেনা বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সঙ্গে সম্পৃক্ততা রেখে নিজের বিভিন্ন এজেন্ডা বাস্তবায়ন করতেন। তিনি ১২টি ক্লাবের সদস্যপদে রয়েছেন।