সিলেট নগরীর মজুমদারি এলাকায় বাসার ছাদ থেকে দুই বোনের লা;;শ উদ্ধার হলেও আসলে কি ঘটেছিলো সেটি এখনো অনুমান করতে পারছেন না পুলিশ। প্রাথমিক ভাবে আ;ত্মহ;;ত্যা হিসেবে ধারণা করা হলেও এটি আরও সময় নিয়ে ক্ষতিয়ে দেখা প্রয়োজন বলে মনে করছে পুলিশ।

সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (গণমাধ্যম) বিএম আশরাফ উল্যাহ তাহের বলেন, দুই বোনের লা;;শ উদ্ধারের পর প্রতিবেশী বা স্বজনদের সাথে কথা বলে যেটুকু জানা গেছে তাতে বিয়ে শাদি নিয়ে একটা হতাশা থাকতে পারে। তাঁদের সকলের অনেক বয়স হলেও এখনো বিয়ে হচ্ছে না। তাছাড়া এরা নানা কারণে অনেকটা মানসিক সমস্যায় ভুগছিলেন।

তবে আমরা এখনই কোন বিষয় নিশ্চিত করে বলতে পারছিনা। আরও জিজ্ঞাসাবাদ ও তদন্ত প্রয়োজন। এর আগে মজুমদারী এলাকার ৩১ নং বাসার ছাদ থেকে রাণী জমিদার (৩৮) ও ফাতেমা বেগম (২৭) নামে দুই বোনের ঝুলন্ত ম;রদে;হ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) সকালে তাদের উদ্ধার করা হয়। তারা দুইজন ওই বাসার কলিমউল্লাহর মেয়ে।

এদিকে দুই বোনের লা;;শ উদ্ধারের ব্যাপারে বিমানবন্দর থানার আম্বরখানা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই মফিজুল ইসলাম বলেন, সকাল ৬ টার দিকে আশপাশের লোকজন জানালা দিয়ে তাদের দুই বোনের লা;;শ বাসার ছাদের রডে ঝুলে থাকতে দেখে চিল্লাচিল্লি শুরু করেন। তখন আমাদের খবর দেওয়া হয়।

আমরা গিয়ে দেখি নিজেরা ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁ;স দিয়েছে। তখন লা;;শগুলো উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক ভাবে এটি আত্মহ;ত্যা হিসেবেই মনে হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, তারা কিছুটা মানসিক ভাবে অস্বাভাবিক ছিলেন। কারো সাথে তেমন মিশতেন না। কোন মোবাইল ফোনও নেই।